ও মুসলিম শোনো, তুমি তোমার ‘নিশ্চিত শত্রু’ কে ভুলে গেছো, তোমার ঊলামা তোমাকে জিহাদ ভুলিয়ে দিয়েছে কিন্তু কুফফার ক্রসেড ভোলে নি।

বিসমিল্লাহ ।
ও মুসলিম (যে জন্মের কারনে মুসলিম কিন্তু চিন্তা, চেতনা, কাজে কাফির), শোনো, তুমি তোমার ‘নিশ্চিত শত্রু’কে ভুলে গেছো, তোমার ঊলামা তোমাকে জিহাদ ভুলিয়ে দিয়েছে কিন্তু কাফির ক্রসেড ভোলে নি।

তোমার রব, আল্লাহ্‌ তোমাকে জানিয়ে দিয়েছেন, “নিশ্চয় কাফেররা তোমাদের প্রকাশ্য শত্রু”। (কোরাআন ৪ঃ১০১)

রাসূল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেনঃ
“শীঘ্রই মানুষ তোমাদেরকে আক্রমণ করার জন্য আহবান করতে থাকবে, যেভাবে মানুষ তাদের সাথে খাবার খাওয়ার জন্য একে অন্যকে আহবান করে”।
জিজ্ঞেস করা হলোঃ তখন কি আমরা সংখ্যায় কম হবো?
তিনি বললেনঃ
“না, বরং তোমরা সংখ্যায় হবে অগণিত। কিন্তু তোমরা সমুদ্রের ফেনার মতো হবে, যাকে সহজেই সামুদ্রিক স্রোত বয়ে নিয়ে যায়
এবং আল্লাহ তোমাদের শত্রুর অন্তর থেকে তোমাদের ভয় দূর করে দিবেন
এবং তোমাদের অন্তরে আল ওয়াহান ঢুকিয়ে দিবেন”।
জিজ্ঞেস করা হলোঃ হে আল্লাহর রাসূল, আল ওয়াহান কি?
তিনি বললেনঃ
“দুনিয়ার প্রতি ভালোবাসা এবং ক্বিতালকে (যুদ্ধকে) অপছন্দ করা”। [মুসনাদে আহমদ]
—————————————————————–
“যখন তোমরা ঈনা জাতীয় সুদী পদ্ধতিতে লেনদেন করবে,
গরুর লেজ আঁকড়ে ধরবে,
কৃষিকাজেই সন্তুষ্ট থাকবে
এবং জিহাদ ছেড়ে দিবে
তখন আল্লাহ তোমাদের উপর লাঞ্ছনা ও অপমান চাপিয়ে দিবেন।
তোমরা তোমাদের দ্বীনে ফিরে না আসা পর্যন্ত আল্লাহ তোমাদেরকে এই অপমান থেকে মুক্তি দিবেন না”।
[সুনানে আবু দাউদ, অধ্যায়ঃ ইজারা, হাদিস নং ৩৪৬২], [মুসনাদে আহমদ, খন্ডঃ ১৪, হাদিস নম্বরঃ ৮৭১৩]
————————————————————————–

শার্ল মর্টেল থেকে ব্রান্ডন ট্যারন্ট ! ১৩শ বছরের বয়ে বেড়ানো চেতনা!

বন্দুকের লেখাগুলো পড়। এই হচ্ছে সেই বন্দুকটি যা দিয়ে নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি মাসজিদে মুসলিমদের উপর হত্যাযজ্ঞ চালানো হয়। বন্দুকটির সারা গায়ে সাদা কালিতে বিভিন্ন নাম, খ্রিস্টান ধর্মান্ধ দলগুলোর বিশেষ কিছু শব্দ ও কিছু ঐতিহাসিক নাম লেখা আছে।
কিন্তু কি তাৎপর্য আছে এই লেখা গুলোর? আসো তোমাকে জানাই একটা একটা করে সেই লেখাগুলোর মানে।

Read More…

Share, if there's benefit in it. Dawah benefits YOU!
%d bloggers like this: